সেই প্রেম - দোমিনিক লাপিয়ের

সেই প্রেম - দোমিনিক লাপিয়ের

দোমিনিক লাপিয়েরের বিখ্যাত উপন্যাস সিটি অফ জয় (City of Joy) অনেকেরই পড়া আছে। আজ আমরা পরিচিত হব তাঁর আরেকটি বিখ্যাত বই "সেই প্রেম"(Beyond Love) এর সাথে। ১৯৮০ সালের কোন একদিন দোমিনিক লাপিয়ের নিউ ইয়র্ক সিটির রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। সেই সময় একটি সংবাদ প্রতিবেদন তাঁর দৃষ্টি আকর্ষণ করল। সংবাদে মাদার টেরেসার ম্যানহ্যাটানে একটি সেবায়তন উদ্বোধন করার কথা ছিল। লাপিয়ের তখনই গ্রীনউইচ ভিলেজের সেই হোমে গিয়ে উপস্থিত হলেন। মাদকসেবীদের জন্য স্থাপিত এই হোম দেখে তাঁর মন এক অপার্থিব অনুভূতিতে ভরে গেল। তিনি অভিভূত হলেন।

সেবায়তনের সেবক-সেবিকা, ডাক্তারদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও মানুষের প্রতি ভালবাসা দেখে তিনি এক ভিন্ন পথের নির্দেশনা পেলেন। শুরু করলেন গবেষণা। দীর্ঘ ৬ বৎসর তিনি ভারত, ফ্রান্স, ইসরাইল ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ঘুরে বেড়ালেন। প্রতিটি দেশের গবেষণাগার, হাসপাতাল ক্লিনিক পরিদর্শন করলেন। কথা বললেন গবেষক, ডাক্তার, নার্স ও রোগীদের সাথে। এইডস রোগের ইতিহাস উদঘাটিত করার চেষ্টা করলেন।

বইয়ের ফ্লাপ থেকে কিছু অংশ উদ্ধৃত করছি। "এডস বিরোধী সংগ্রামের বিভিন্ন ফ্রন্টে যারা সফলতা পেয়েছেন তাঁদেরই কয়েকজনের আশা নিরাশা নিয়ে রচিত হয়েছে এই কাহিনী। এদের মধ্যে আছেন উচ্চাকাঙ্ক্ষী মার্কিন বিজ্ঞানী, পরিহাস বিদ্রুপ তুচ্ছ করেও যিনি নিরলস গবেষণায় মগ্ন থেকেছেন এবং একই প্রজাতির এই হত্যাকারী ভাইরাসের আবিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত রণে ভঙ্গ দেন নি (অবশ্য সেদিন তাঁর সহযোগী বিজ্ঞানীরা ভাইরাস আবিষ্কারের সঙ্গে সঙ্গেই প্রাণভয়ে চম্পট দিয়েছিল), তেমনি আছেন সেই অত্যুৎসাহী ফরাসী বিজ্ঞানী যিনি প্রাণপণ চেষ্টায় প্রতিপন্ন করতে চেয়েছিলেন যে এ ব্যধি শুধু 'সমকামী মড়ক নয়, আরও কিছু।' আর আছে সেই দু:সাহসী মার্কিন ডাক্তারের কাহিনী, যিনি অকুতোভয়ে রান্নাঘরের ফ্রিজারের মধ্যে মিঠাইয়ের বাক্সের গায়েই জমা করেছিলেন সংক্রমিত রিসার্চ টিসুগুলো।

ঠাসবুননের এই কাহিনীর পাত্রপাত্রীরা কেউ-ই কাল্পনিক নয়। সবাই বাস্তব চরিত্র। সবাই নির্ভীকভাবে শতকের এই ভয়ঙ্কর চ্যলেঞ্জের মোকাবিলা করে চেলছেন।....এই যৌথ উদ্যমে সবাই আছেন। আছেন গবেষক, বিজ্ঞানী, ভাইরোলজিস্ট, ল্যাবরেটরির প্রযুক্তিবিদ, ডাক্তার; আর আছেন রোগী ও নার্স।"

সেই প্রেম গ্রন্থের গ্রন্থকারের নিবেদন অংশে লেখক দোমিনিক লাপিয়ের এর নিজের কথা থেকে কিছু উদ্ধৃত করি।

"....যদিও দীর্ঘ গবেষণা ও সযত্ন অনুশীলনের ফসল,তা হলেও কাহিনীতে সব ঘটনার উল্লেখ নেই। গ্রন্থকার সে দাবিও করেন না। মানুষের এক অবিশ্বাস্য সংগ্রামের এপিক কাহিনী এই গ্রন্থ। ১৯৮০ থেকে ১৯৮৬, এই অনতিদীর্ঘ ছ'টা বছর এডস নামক এক কালব্যাধির বিরুদ্ধে বিজ্ঞান ও মানুষের যৌথ সংগ্রামের কাহিনী লিপিবদ্ধ হয়েছে এই গ্রন্থে। সংঘাতমুখর এই নাটকীয় সংগ্রামী দিনগুলোয় একদা যাঁরা সৈনিক, সর্বকালের ভয়ঙ্কর এই মারীব্রাধির সঙ্গে প্রতিদিনের লড়াইয়ে যাঁদের এক বিশেষ ভূমিকা এবং এই আগ্রাসী ব্যাধির আঘাত থেকে মানবজাতিকে বাঁচাবার পথ যাঁরা খুঁজে চলেছেন, তাঁদের সকলের কথাও কাহিনীতে বলা হয় নি।"

এক ভয়ংকর রোগ এইডস এর বিরুদ্ধে মানুষের লড়াই এর কাহিনীই এই গ্রন্থের উপজীব্য বিষয়। ডাক্তার, বিজ্ঞানী, রোগী, নার্স সকলের সক্রিয় সংগ্রামের এক অনবদ্য দলিল এই গ্রন্থটি। মানুষের প্রতি অপার ভালবাসা, জীবনের আকুলতা, মানবতার জয়গান লেখককে বইটি লিখতে নিরন্তর অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে। Beyond Love গ্রন্থের বাংলা অনুবাদ করেছেন রবিশেখর সেনগুপ্ত।

প্রকাশকাল: ১৯৯৩

প্রকাশক: এম.সি. সরকার অ্যান্ড সন্স প্রাইভেট লিমিটেড, কলকাতা।

ISBN: 81-7157-047-X

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য করার পূর্বে মন্তব্যর নীতিমালা সম্পাদকের স্বীকারোক্তি পাঠ আবশ্যক। ইচ্ছে করলে ই-মেইল করতে পারেন।