ভাষার বিভিন্ন অর্থতত্ত্ব বুঝতে সহায়তা করবে ‘ড. মোঃ আব্দুল মুহিত’ রচিত বই “ভাষা দর্শন”

ভাষার বিভিন্ন অর্থতত্ত্ব বুঝতে সহায়তা করবে ‘ড. মোঃ আব্দুল মুহিত’ রচিত বই “ভাষা দর্শন”

মানবীয় চিন্তা বহিঃপ্রকাশের অন্যতম মাধ্যম ভাষা। মানুষ নিজের মনের গহীনে যে কল্পনার জাল বোনে তা বংশপরম্পরায় বাহিত হয় ভাষার হাত ধরে। ভাষার মর্মে যা লুকিয়ে থাকে তাই ভাষা দর্শন। আর এই ভাষা দর্শনের ওপর পূর্ণাঙ্গ আলোচনা রয়েছে “ভাষা দর্শন” বইতে। লেখক ‘ড. মোঃ আব্দুল মুহিত’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে অধ্যাপক পদে কর্মরত আছেন। স্নাতকোত্তর শ্রেণীর পাঠক্রমে ভাষা দর্শন বিষয়টি পড়াতে গিয়ে দেখেন এই প্রসঙ্গে বাংলা ভাষায় প্রয়োজনীয় বইয়ের অভাব রয়েছে। বইয়ের ‘প্রসঙ্গ কথা’ শীর্ষক ভূমিকাতে তিনি বলেনঃ
আমার জানা মতে, ভাষা দর্শনের ওপর বাংলায় কোনো পূর্ণাঙ্গ প্রামাণ্য গ্রন্থ নেই। অথচ দর্শনের একটি বিশেষ শাখা হিসেবে ভাষা দর্শন বিবেচিত।
তাই লেখক নিজেই এই অভাব দূর করতে সচেতন হন। তিনি স্বীকার করেন এই বই কোন মৌলিক রচনা নয়। নতুন কোন তত্ত্ব বা চিন্তা তিনি উদ্ভাবন করেন নি। প্রখ্যাত চিন্তাবিদ আলস্টনের (William P. Alston) ‘Philosophy of Language’ এবং লাইকানের (William G. Lycan) ‘Philosophy of Language: A Contemporary Introduction’ – এর অনুসরণে এই গ্রন্থের অবকাঠামো রচিত। এছাড়া আরও যেসব বইয়ের উপাদান দিয়ে এই গ্রন্থের অবয়ব নির্মিত হয়েছে তার মধ্যে ওডেলের (S. Jack Odell) ‘On the Philosophy of Language’, মিলারের (Alexander Miller) ‘Philosophy of Language’ এবং স্টেইনটনের (Robert J. Stainton) ‘Philosophical Perspectives on Language’ অন্যতম।

সূচীপত্র পাঠে আজকের বইতে আলোচ্য বিষয়ের বিস্তৃতি ও সংজ্ঞা স্পষ্টতর হবে। এ লক্ষ্যে পূর্ণাঙ্গ সূচীপত্র উল্লেখ করা হল।

সূচীপত্র
  • প্রসঙ্গ–কথা
  • ১. ভাষা দর্শন: স্বরূপ ও ক্রমবিকাশ
  • ২. অর্থ ও  নির্দেশনা
  • অর্থের নির্দেশমূলক মতবাদ
  • স্বকীয় নাম, নির্দিষ্ট বর্ণনা ও অর্থপূর্ণতা
  • বর্ণনামূলক নির্দেশনা মতবাদ: ফ্রেগে, রাসেল, সার্ল
  • রাসেলের বর্ণনাতত্ত্ব
  • প্রত্যক্ষ নির্দেশমূলক মতবাদ: মিল, মার্কাস, কৃপকি
  • কারণিক- ঐতিহাসিক মতবাদ: ডোনেলান, কৃপকি
  • ৩. অর্থসংক্রান্ত অন্যান্য মতবাদ
  • অর্থের ধারণাগত বা ভাবনামূলক মতবাদ: লক
  • অর্থের আচরণবাদী মতবাদ: ব্লুমফিল্ড, মরিস
  • সত্য-মানশর্ত হিসেবে অর্থপূর্ণতা: টারস্কি, ডেভিডসন
  • ৪. যৌক্তিক প্রত্যক্ষবাদ এবং অর্থের যাচাইযোগ্যতার মানদণ্ড
  • যৌক্তিক প্রত্যক্ষবাদ এবং ভিটগেনস্টাইনের ট্র্যাকটেটাস
  • অর্থের যাচাইযোগ্যতার মানদণ্ড: কারনাপ, এয়ার
  • ৫. লুডভিগ ভিটগেনস্টাইনের ভাষা দর্শন
  • ট্র্যাকটেটাস এবং অর্থের চিত্রতত্ত্ব
  • পরবর্তী ভিটগেনস্টাইনের অর্থসংক্রান্ত ব্যবহার বা প্রয়োগ মতবাদ
  • ৬. অর্থসংক্রান্ত বাচন-ক্রিয়া মতবাদ
  • জে. এল. অস্টিন
  • জন সার্ল
  • পল গ্রাইস
  • ৭. অর্থের বিভিন্ন মাত্রা
  • অস্পষ্টতা
  • দ্ব্যর্থকতা
  • রূপক
  • পরিভাষা
  • গ্রন্থপঞ্জি
  • নির্ঘন্ট
ভাষা দর্শনের অন্যতম আলোচ্য বিষয় অর্থতত্ত্ব (Semantics) এই বইয়ের মূল প্রসঙ্গ। অর্থতত্ত্বের প্রধান মতবাদসমূহ এই বইতে সহজ ভাষায় জ্ঞানান্বেষী শিক্ষার্থীর উপযোগী করে পরিবেশন করা হয়েছে। এর পাশাপাশি ভাষা দর্শনের আর একটি শাখা প্রয়োগতত্ত্বের (Pragmatics) আলোচনা এক বিশেষ স্থান জুড়ে আছে। বলা যায় ভাষা দর্শনের জগতে সাম্প্রতিক যে মতবাদসমূহ চিন্তাবিদদের মননে আলোড়ন তুলেছে সেগুলোর পরিচিতি ও বিশ্লেষণ এই বইয়ের প্রধান বিবেচ্য। অর্থতত্ত্বের জনপ্রিয় মতবাদ অর্থের নির্দেশমূলক মতবাদের পাশাপাশি ফ্রেগে, রাসেল ও সার্লের বর্ণনামূলক নির্দেশনা মতবাদ, মিল ও কৃপকির প্রত্যক্ষ নির্দেশনামূলক মতবাদ, ডোনেলান ও কৃপকির কারণিক-ঐতিহাসিক মতবাদ, লকের ধারণাগত মতবাদ, ব্লুমফিল্ড ও মরিসের আচরণবাদী মতবাদ, টারস্কি ও ডেভিডসনের সত্য-মানশর্ত মতবাদ এবং যৌক্তিক প্রত্যক্ষবাদীদের যাচাইযোগ্যতার নীতি প্রভৃতি এই বইতে বিশেষ গুরুত্বের সাথে উপস্থাপিত হয়েছে।

ভাষা দর্শনের অন্যতম বিখ্যাত দার্শনিক হলেন লুডউইক ভিটগেনস্টাইন (Ludwig Wittgenstein) । তাঁর দার্শনিক বোধ ভাষা দর্শনের দু'টি ধারারই (কৃত্রিম ভাষার ধারা এবং সাধারণ বা প্রাকৃতিক ভাষার ধারা) প্রতিফলন রয়েছে। গুরুত্ব বিবেচনায় ভিটগেনস্টাইনের চিন্তাধারা একটি অধ্যায়ে সম্পূর্ণ আলোচনা করা হয়েছে। ভাষা দর্শনের একটি প্রধান শাখা ‘প্রয়োগতত্ত্বে’র (Pragmatics) প্রধান প্রত্যয় হল 'বাচন ক্রিয়া' (Speech Act), এর বিভিন্ন রূপ নিয়ে অস্টিন, সার্ল ও গ্রাইসের চিন্তাভাবনার আলোচনাও রয়েছে এই বইতে।

অর্থের বিভিন্ন মাত্রা যেমন ‘অস্পষ্টতা’, ‘দ্ব্যর্থকতা’ ও ‘রূপক’ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা রয়েছে বইয়ের শেষাংশে। লেখক বিশ্লেষণধর্মী যুক্তির আলোকে বিষয়গুলোর বৈশিষ্ট্য পাঠকদের সামনে উন্মোচন করেছেন। আলোচনা প্রসঙ্গে বিভিন্ন দার্শনিকদের মতামত ব্যাখ্যা করে অর্থের বিভিন্ন মাত্রাগুলোর সংজ্ঞায়ন করেছেন; ব্যাখ্যা করেছেন সেগুলোর বহুরূপময়তাকে।

আলোচ্য গ্রন্থটি ভাষার অর্থতত্ত্ব বিষয়ে প্রখ্যাত দার্শনিকদের মতবাদকে বুঝতে সহায়তা করবে। আগ্রহী পাঠক ভাষায় অর্থের বহুধা বিভক্তি ও বৈচিত্রপূর্ণতা অনুধাবনে সচেষ্ট হবেন। এরকম একটি বিষয়ে বাংলা ভাষায় আরও বই রচিত হোক এই প্রত্যাশা করি।

========================
ভাষা দর্শন
ড. মোঃ আব্দুল মুহিত
প্রচ্ছদঃ তানজিলা মুহিত খান রীকা
প্রকাশনীঃ অবসর প্রকাশনা সংস্থা, ঢাকা
প্রকাশকালঃ ২০১৫
পৃষ্ঠাঃ ১৬২
মূল্যঃ ২২৫
ISBN: 978-984-8796-26-9

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য করার পূর্বে মন্তব্যর নীতিমালা পাঠ আবশ্যক। বিস্তারিত কিছু জানাতে চাইলে এখানে ক্লিক করে ই-মেইল করুন।