‘শব্দকুঠি’ সম্পর্কে চুলচেরা বিশ্লেষণঃ আদ্যনাথ ঘোষ

‘শব্দকুঠি’ সম্পর্কে চুলচেরা বিশ্লেষণঃ আদ্যনাথ ঘোষ

‘শব্দকুঠি’ শিল্প সাহিত্যের ত্রৈমাসিক পত্রিকাটি জুলাই, ২০১৯ / আষাঢ় ১৪২৬ এ জন্ম নিল। পত্রিকাটির প্রচ্ছদ বেশ মনোরম এবং গঠনগত দিক থেকেও সুন্দর ও আকর্ষণীয়। প্রচ্ছদ এঁকেছেন শিশির মল্লিক। সম্পাদনা পরিষদে রয়েছেন কবি মতিন বৈরাগী, ভাস্কর রাশা, রণক মুহম্মদ রফিক ও শেলী সেনগুপ্তা। সম্পাদক রুকসানা রহমান। নির্বাহী সম্পাদক কবি বঙ্গ রাখাল।

প্রবন্ধ লিখেছেন প্রাবন্ধিক হাসানুজ্জামান, কবি ও প্রাবন্ধিক মজিদ মাহমুদ, প্রাবন্ধিক আশরাফ পিন্টু, মামুন মুস্তাফা, শিশির মল্লিক ও অনুপম হীরা মণ্ডল। কবিতা লিখেছেন কবি সুজন হাজারী, কবি ফকির ইলিয়াস, কবি মৃধা আলাউদ্দিন, সুশান্ত হালদার, শাহনেওয়াজ মিঠু, রীতা আক্তার, এমদাদ শুভ্র, ফারুক আফিনদী, বিনয় কর্মকার, শাহিদা ফেন্সী, অনার্য নাঈম, সিগমা আউয়াল ও তারিক শিপন। গল্পে শেলী সেনগুপ্ত, রুকসানা রহমান, লতিফ জোয়ার্দার, নাজনীন সাথী ও হানিফ রাশেদীন।  মুক্তগদ্য: কবি বঙ্গ রাখাল,  সিগমা আউয়াল। গ্রন্থ আলোচনায়: জোবায়ের মিলন, আবুল কাইয়ুম।

এ সম্পর্কে বিচার বিশ্লেষণমূলক প্রবন্ধ এই গ্রন্থে লিখেছেন যা পাঠককে কৌতূহলী ও নতুন ধারণার সৃষ্টি করবে বলে আমি মনে করি।

গ্রন্থটিতে লোক কবি পাগলা কানাই এর গান সম্পর্কে  দুর্লভ কিছু তথ্য আমাদের সামনে প্রাবন্ধিক তুলে ধরেছেন যা পাঠক সমাজকে প্রলুব্ধ করে। মজিদ মাহমুদ একজন কবি ও শক্তিমান প্রাবন্ধিক। তিনি বুদ্ধদেব বসুর দৃষ্টিতে কবি জীবনানন্দ দাশ কেমন ছিলেন? কেমন তাঁর লেখনি? এ সম্পর্কে বিচার বিশ্লেষণমূলক প্রবন্ধ এই গ্রন্থে লিখেছেন যা পাঠককে কৌতূহলী ও নতুন ধারণার সৃষ্টি করবে বলে আমি মনে করি।

এছাড়াও ব্যতিক্রমধর্মী একটা লেখা আমার কাছে ধরা পড়েছে। সেটি হলো ‘ফকির লালন সাঁইজির দেহাত্মবাদ; ধারণার অস্পষ্টতা’ লিখেছেন অনুপম হীরা মণ্ডল। কবি ওমর আলী’র সংলাপধর্মী কবিতা সম্পর্কে লিখেছেন প্রাবন্ধিক আশরাফ পিন্টু। কবি সুজন হাজারীর ‘নৈঃশব্দ্যের অন্ধকার’ ও কবি ফকির ইলিয়াসের ‘হাতুিড়তন্ত্র’ অসাধারণ ও ব্যতিক্রমধর্মী কবিতা। কবি বিনয় কর্মকার ও কবি অনার্য নাঈম এর কবিতা দু’টি পাঠকের কাছে নতুন বলে মনে হবে।
গল্পটি খুবই সহজপাঠ্য।
কবি লতিফ জোয়ার্দারের গল্প আমাদের কাছে সবসময় ভালো লাগে। ‘কোনো রঙ নেই’ গল্পটি এ গ্রন্থে আমরা দেখতে পাই। গল্পটি খুবই সহজপাঠ্য। এছাড়াও শেলী সেনগুপ্ত এর ‘মানুষ খোঁজার আনন্দ’ ও রুকসানা রহমান এর ‘ভাসাবে সেই ভেলায়’ গল্প দু’টি পাঠকের কাছে সুখকর হবে বলে আমার বিশ্বাস। কবি হানিফ রাশেদীন লিখেছেন ‘খুন’ গল্পটি। যা পাঠকের কাছে একটি মৌলিক রচনা এবং অনবদ্য। কবি বঙ্গ রাখাল এর মুক্ত গদ্য ‘ছেঁড়াফাটা বর্ষাকাল এক জীবন ক্ষরণের গল্প’ এক অসাধারণ উপহার। ‘অগ্রন্থিত রফিক আজাদ’ গ্রন্থটির চমৎকার এবং গঠনমূলক আলোচনা করেছেন জোবায়ের মিলন। সর্বশেষ ‘লালটিপ’  গ্রন্থটির স্বদেশলগ্ন ও চেতনার কাব্য বিষয় নিয়ে সম্যক আলোচনা আবুল কাইয়ুম লিখেছেন যা পাঠকদেরকে অন্য এক সাহিত্যের ভুবনে সাঁতার কাটতে শেখান।

আমি মনে করি ‘শব্দকুঠি’ পত্রিকাটি পাঠকমহলে টিকে থাকবে। সাহিত্যের মাপকাঠিকে পত্রিকাটি উত্তীর্ণ। পত্রিকাটির ধারাবাহিকতা কামনা করি।


কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য করার পূর্বে মন্তব্যর নীতিমালা সম্পাদকের স্বীকারোক্তি পাঠ আবশ্যক। ইচ্ছে হলে ই-মেইল করুন।