‘সাঈদ আজাদ’ এর নিসিন্দার ফুলঃ যাপিত জীবনের প্রতিচ্ছবি ।। আল-আমীন আপেল

সাঈদ আজাদ এর নিসিন্দার ফুলঃ যাপিত জীবনের প্রতিচ্ছবি ।। আল-আমীন আপেল
কথাকার সাঈদ আজাদের প্রথম প্রকাশিত বই অথবা, প্রথম গল্পগ্রন্থ- যেটিই বলি, সেটার নাম 'নিসিন্দার ফুল'। জীবন যেখানে জেগে উঠেছে, ফুটে উঠেছে, সরল শব্দশৈলীতে। কথাকার সাঈদ আজাদের এটাই একটা পোক্ত ক্ষমতা যে, তিনি জীবনের সাদামাটা ভাবনা, ছোটখাটো কল্পনাকে মোহনীয় কায়দায় গল্পে আনতে পারেন।

যাপিত জীবনে প্রেম, বিরহ, নিম্নবিত্তকষ্ট, মধ্যবিত্ত কষ্ট, মাঝারি কষ্ট, দৈহিক চাহিদা- এমনই হাজার রকমের প্রেক্ষাপট ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে থাকে। মোট উনিশটি গল্পে কথাশিল্পী সাঈদ আজাদ এমন সব বিষয় তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন; প্রত্যেকটা গল্পই যেনো একটা জীবনদর্শন।

“সব মিলে দুর্দান্ত কম্বিনেশন; আলোর আভাস

সবচে' ভালো লেগেছে 'ঘড়ি' গল্পটি। লেখক কতখানি মনোবিজ্ঞানীর মতোন বিশ্লেষণ করেছেন জীবনকে, এই গল্পটা পড়লেই প্রমাণ পাওয়া যায়। গল্পে- মধ্যবিত্ত বাবার, ছেলেকে দামি ঘড়ি কিনে দিতে না পারার যে ব্যর্থতা বোধ, সেটাকে আবার কথন চরিত্রের মাধ্যমে অনুভব করা। কথকের মাধ্যমে ছেলেটির ইচ্ছা পূর্ণ করতে চেয়েও শেষ অবধি না করা--মূল থিমটা এখানেই। গল্পকার এখানে ইতি টেনেছেন; একটা বিষয় বুঝিয়ে। বিষয়টা ঠিক এমন- কথক যদি ছেলেটিকে আড়ালে ডেকেও ঘড়িটি কিনে দেয়, তবে পরোক্ষভাবে ছেলের সামনে বাবার ব্যর্থতা প্রকাশ পাবে, সেই নিম্নবিত্ত কষ্ট বা মধ্যবিত্ত কষ্ট বাবাকে খুব করে যাতনা দেবে; কথক সেটা চায় নি। কারণ, আগবাড়িয়ে সব উপকার সব সময় হিতকর হয় না, হিতের উল্টো হতে পারে। --এই ভাবনাটা আমাকে পুলকিত করেছে, চোখ ভিজিয়ে দিয়েছে; মধ্যবিত্ত পরিবারে বেড়ে উঠছি বলেই হয়ত খুব টেনেছে গল্পটা, আমাকে।

এছাড়াও 'শিংমাছ', নিসিন্দার ফুল, সম্পত্তি, পৌনঃপুনিক, কৃষ্ণা তিথির চাঁদ--সহ সব গল্পেই বুদ হয়ে পড়েছি।

'নদীর ওপাড়' গল্প নিয়ে দুটি কথা না বললে এ রিভিউ ব্যর্থতার দিকে দশ পা এগিয়ে থাকবে। তাই একটু বলি।

গল্পে, বোকা সাজুর যৌবনে টইটুম্বুর, এতিম মেয়ে 'মালা'র প্রতি টান; শুধু সাজুর কেনো বুড়ো মাতব্বরও তো তার দিকে ফ্যালফেলিয়ে তাকিয়ে রয়। সে তাকানো থেকে বিয়ে, সাজু-মালা এক মেরুতে, একবাড়িতে থেকেও যেনো অচেনা, ভীষণ অচেনা। পছন্দের মানুষকে তাই 'ভাবি' ডাকতে হয়।

ছোটো খাটো দোষে বউদের তালাকের মঞ্চে তোলা মাতব্বরের সদভ্যাস, মালাও সে মঞ্চে উঠেছে; তালাকের কারণটা সাজানো হলেও মঙ্গলকর হয় মালা ও সাজুর জন্যি। মাতব্বর সাজানো বিয়ে দেয় মালা আর সাজুর। প্লান হচ্ছে, এটার মাধ্যমে মালাকে চরিত্রহীন প্রমাণ করা; তালাকের রাস্তা জলের মতন স্বচ্ছ। মালা, সাজু কেউ সে কথা জানে না। মালার নদীর ওপাড়ে হারিয়ে যাওয়া বাবা-মা, ওপাড়ের জীবনের প্রতিটান, সাজুর ওপাড়ে পরিবারের কাছে ফিরে যাবার ব্যাকুলতা, সব মিলে দুর্দান্ত কম্বিনেশন; আলোর আভাস। সাজানো বিয়েরর বাসার রাতটাকে কাজে লাগিয়ে ওপাড়ে ফিরে যাওয়া। কি বলব! আপনাকে 'পুলকিত' করবে-ই করবে।

আখ্যানধর্মী, সম্ভাবনাময় শব্দশিল্পী সাঈদ আজাদের জন্যি সীমাহীন 'সাত সমুদ্দুর' সমান নিঃস্বার্থ ভালোবাসা।

-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-
নিসিন্দার ফুল
সাঈদ আজাদ

প্রচ্ছদ : মাসুক হেলাল
প্রকাশনী: জনান্তিক
মূল্য: ৩০০টাকা
পৃষ্ঠা : ১৫৯
ISBN 984-781-152-X

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য করার পূর্বে মন্তব্যর নীতিমালা পাঠ আবশ্যক। বিস্তারিতভাবে কিছু জানাতে চাইলে এখানে ক্লিক করে ই-মেইল করুন।