‘সাঈদ বিলাসে’র “শ্রমদাস” - পাণ্ডুলিপি পড়েঃ মাহবুব রহমান

‘সাঈদ বিলাসে’র “শ্রমদাস” - পাণ্ডুলিপি পড়েঃ মাহবুব রহমান

নষ্ট সময়কে আষ্টেপৃষ্ঠে বেঁধে, তাকে শাসন করে, চোখ রাঙিয়ে, খুব করে বকে দিয়ে, কিংবা আত্মবিশ্বাসী ও অহংকারী প্রেমিকের মতো অবহেলা করে, অপমান করে, উপেক্ষা করে যখন বাগে আনা যায় না, সব শ্রম উপসংহারে এসে পণ্ড শ্রম হয়ে যায়, তখন একজন Saeed Bilash এর কাব্যগ্রন্থ শ্রমদাস বের হলে ব্যভিচারী বাতাস কি পালটে দেবে তার রঙ, দেবে না।

“একটা সিদ্ধান্তহীনতার মাঝামাঝি দাঁড় করিয়ে দেই এই কবিতাগুলিকে।”

তবে কি লাভ এই কাব্য দিয়ে, এই লেখালেখি, আর মানুষের পক্ষপাতিত্ব করে, তাছাড়া কাব্য যে পড়বে - কোথায় সেই সংবেদনশীল পাঠক? - এই সব প্রশ্নের মীমাংসা হতে না হতেই, দুম করে পাণ্ডুলিপি চলে এল হাতে, ভাঁজ খুলে পড়তে বসি সাঈদ বিলাসকে। পড়া শেষ করে মনে হলো, এই যে ষোলো কোটি বারুদ ময়লা জলে ভিজে গেল, এই সব কি ছুঁড়ে ফেলে দেব আস্তাকুড়ে, নাকি আগামীর কথা ভেবে সংগোপনে শুকিয়ে নেব - একটা সিদ্ধান্তহীনতার মাঝামাঝি দাঁড় করিয়ে দেই এই কবিতাগুলিকে।

এখন যে ভালোবাসার ঘামে চাষ হয় শ্রমদাস, এই কাল কি মহাকালের কৃষ্ণ গহ্বরে বিলীন হবে না নাকি তাড়িয়ে নেবে আরও কয়েক দশক, এই সব অনুভবে অনুভবে শেষ হলো পড়া।

সাঈদ বিলাস তোমার সোনার কলম হোক।

-0-0-0-0-0-0-0-0-0-0-0-0-
শ্রমদাস
সাঈদ বিলাস


প্রথম প্রকাশ : ফেব্রুয়ারি ২০১৯
প্রচ্ছদ : নিশাত তুলি
প্রকাশক : প্রতিকথা, ঢাকা।
দাম : ১২০ টাকা
ISBN:  9 789843 459411

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য করার পূর্বে মন্তব্যর নীতিমালা সম্পাদকের স্বীকারোক্তি পাঠ আবশ্যক। ইচ্ছে করলে ই-মেইল করতে পারেন।