বাম হাতে সমুদ্র ঠেলছি | মোস্তফা মঈন

বাম হাতে সমুদ্র ঠেলছি | মোস্তফা মঈন

কেউ তুলসীতলায় গিয়ে স্বাস্থ্যকর শ্বাস নেয়।
কেউ চৌদ্দতলা বাড়িতে সেক্সোয়াল ফ্রাই বানায়।
আমি নিজের বিম্বে নাক ঘষে শব্দ খুঁড়ে জীবন উৎরাই। নিজের গায়ের চামড়া খসিয়ে তাতে আসন পেতে শব্দফুলে শ্বাস নেই কবিতায়।
আমি অন্য কারো ক্ষতি করিনি তো। কদিনের জন্যে জীবন নিয়ে এটুকুই বেঁচে থাকার স্বার্থপরতা।

কিন্তু এতোটুকু শ্বাস নিতে গিয়েও কতো কী হাঙ্গামা! সুহৃদ শত্রু হয়ে যাচ্ছে! বন্ধু সরে যেতে যেতে আরো আরো দূরে....
শুধু কবিতাই আমাকে ছেড়ে যায় না কোথায়ও।
এই ঘোর জঙ্গলে এসে এটুকু বুঝেছি,
সংকটকালে বাঘিনীর দুধও পান করা যায়।
কিন্তু ধূর্ত শেয়ালিনীর দুধ পান করা যায় না।
দৌড়াতে দৌড়াতে কিছু হিংস্র মানুষের ঘা খেতে খেতে, ল্যাংচাতে ল্যাংচাতে আমি যখন জঙ্গলে গিয়ে একটা বাঘিনীর গুহায় আশ্রয় নিয়েছিলাম; আমাকে হত্যার জন্যে লোকগুলো যখন জঙ্গলে হানা দিয়েছিলো, তছনছ করে যাচ্ছিল জঙ্গলের নিঝুম প্রহর, আমার দুঃখে বনের পাখিরাও যখন সমব্যথী হয়ে চিৎকার শুরু করেছিলো, আমি তখন একটা মা বাঘিনীর দুধেই প্রাণ ফিরে পেয়েছিলাম।
আর বাঘিনীর দুধের চেয়ে শ্রেষ্ঠতম কোনো কবিতা আমি পান করিনি, জীবনের এই ঘোর জঙ্গলে কবিতা ছাড়া আমি আর অন্য কিছু ভাবি না।

হ্যাঁ, মরতে মরতে জলে-কাদায় নাক ডুবিয়ে নিঃশ্বাসে বিশ্বাসে কবিতা।

২০১৯ বইমেলায় প্রকাশিত হলো মোস্তফা মঈন এর ষষ্ঠ কবিতার বই

'বাম হাতে সমুদ্র ঠেলছি'
মোস্তফা মঈন


প্রচ্ছদ অলংকরণ : চারু পিন্টু
ছবি ঋণ : বারীণ ঘোষ
প্রকাশক : বেহুলাবাংলা প্রকাশন
বইমেলা: স্টল নং ১২৩, ১২৪
পৃষ্ঠা সংখ্যা ৪৮
মূল্য: ১৫০ টাকা
ISBN: 978-984-505- 138-5

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য করার পূর্বে মন্তব্যর নীতিমালা সম্পাদকের স্বীকারোক্তি পাঠ আবশ্যক। ইচ্ছে হলে ই-মেইল করুন।