সাহিত্য সম্পর্কিত প্রশ্নের উত্তর জানতে পড়ুন ‘ফজলুল হক সৈকত’ সম্পাদিত "সাহিত্যতত্ত্ব জিজ্ঞাসা"

‘ফজলুল হক সৈকত’ সম্পাদিত "সাহিত্যতত্ত্ব জিজ্ঞাসা"

বর্ণ ও ব্যাকরণ জ্ঞান হল ভাষাকে চিনতে ও বুঝতে পারার চাবিকাঠি। ভাষা সৌন্দর্যময় হয় যে সাহিত্যের ছোঁয়ায়, তাকে বুঝতে প্রয়োজন হয় আর একটু বেশি ধারণার। এই ধারণা অর্জন সহজ নয়। এর জন্য প্রয়োজন দীর্ঘ পর্যবেক্ষণজাত অভিজ্ঞতা। সাথে নিবিড়পাঠ যোগ হলে সাহিত্য অনুভব ও উপলব্ধজাত জ্ঞান হবে আরও সমৃদ্ধ। সাহিত্যের পঠন অভিজ্ঞতাকে বুদ্ধিদীপ্ত করতে যে ধরণের জ্ঞান অর্জন প্রয়োজন তার নাম সাহিত্যতত্ত্ব। সাহিত্যকে যথাযথ বোঝার জন্য যেসব তত্ত্বজ্ঞান অর্জন করা প্রয়োজন তাই সাহিত্যতত্ত্ব। সমাজ, রাজনীতি, দর্শন, সময়কাল সবসময় গতিশীল। মহাকালের অনন্ত যাত্রাপথের বাঁকে বাঁকে প্রয়োজনের প্রতিক্রিয়ায় মানব সমাজ পাল্টে ফেলে নিজের সৌন্দর্য, নীতিবোধ ও যাবতীয় বোধবুদ্ধির সীমারেখা। সাথে সাথে পাল্টে যায় সাহিত্যের তত্ত্ব বা সংজ্ঞাও। মানসিক ও বুদ্ধিবৃত্তিক অভিজ্ঞতা তৈরি করে আলাদা আলাদা অনুভূতির বিকাশ। সাহিত্য সম্পর্কে এইসব বিভিন্নমুখী দৃষ্টিকোণগুলো তৈরি করেছে সাহিত্যতত্ত্বের বিভিন্ন ধারা। সাহিত্যতত্ত্বের এইসব বিভিন্ন প্রকারের কয়েকটির বিশ্লেষণ রয়েছে আজকের আলোচ্য "সাহিত্যতত্ত্ব জিজ্ঞাসা" বইতে। ড. ফজলুল হক সৈকত সম্পাদিত এই বইতে প্রবন্ধ রয়েছে মোট ২৪টি। সংশ্লিষ্ট প্রসঙ্গে বিদগ্ধ পণ্ডিতবর্গের রচিত প্রবন্ধগুলো সম্পাদনার কাজটি সহজ নয়। ড. ফজলুল হক সৈকত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে 'বাংলা ভাষা ও সাহিত্য' বিষয়ে কৃতিত্বের সাথে সম্মান, মাস্টার্স ও পি.এইচ.ডি ডিগ্রি অর্জন করেছেন। তিনি অত্যন্ত পরিশ্রমী ও নিষ্ঠাবান লেখক। নিজের বইয়ে আলোচ্য বিষয়ের প্রাসঙ্গিকতা লেখক 'সংকলনের পূর্বকথা' শীর্ষক রচনায় ব্যাখ্যা করেছেন এভাবে-

সাহিত্য পাঠের জন্য অতি-আবশ্যকভাবে দরকার সাহিত্য-বিবেচনার তত্ত্ব তথা থিওরি সম্বন্ধে ধারণা লাভ। মানুষের চিন্তা-পদ্ধতি এবং ভাবনা-প্রকাশের মাধ্যম ও রীতি পরিবর্তনের সাথে সাথে সাহিত্যের কাঠামো এবং এই সম্বন্ধীয় ও পাঠ-বিচারের পদ্ধতি এবং প্রায়োগিক বিশ্লেষণ-ভাবনাও পাল্টেছে বারবার।

সাহিত্যের ধারণা বা সাহিত্যের বোধ সম্পর্কিত এই চিন্তাগুলো সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন বেশ পরিশ্রমসাধ্য। একই প্রসঙ্গে একাধিক লেখকের রচনা থেকে জানতে হয় ব্যক্তিভেদে মননচিন্তার স্বরূপ। চিহ্নিত করতে হয়, বুঝে নিতে হয় একই বিষয়ে বিভিন্নজনের ব্যক্তিগত মানসিকতার প্রতিফলন। মতদ্বৈধতা মূলত পক্ষপাতকেন্দ্রিক। শুনতে স্থূল হলেও একথা সত্য যে ব্যক্তির নিজস্ব জীবন-অভিজ্ঞতার নির্যাস তার মানসিক দৌর্বল্য তথা পক্ষপাত তৈরি করে। সাহিত্যতত্ত্ব এই জন্য পাঠ উপাদান হিসেবে ব্যাপক, দীর্ঘ ও অনেকাংশে ক্লান্তিকর। প্রাসঙ্গিক বিবেচনায় সূচিপত্রটি একনজর দেখা যেতে পারে।

  • উত্তর উপনিবেশবাদ ও উত্তরাধুনিকতা ।। ফয়েজ আলম
  • সাহিত্যতত্ত্ব : পরিচয় ।। টেরি ইগলটন
  • এনলাইটেনমেন্ট কী বস্তু।। সলিমুল্লাহ খান
  • উত্তরাধুনিকতাবাদ: মহান আখ্যান থেকে ক্ষুদ্র উপাখ্যান।। রশিদ আসকারী
  • উত্তর-আধুনিকতা: সহজপাঠ।। অমিতাভ চক্রবর্তী
  • অরিয়েন্টালিজম ও তারপর: এডওয়ার্ড সাঈদের কাজে দ্বৈধ ও মেট্রোপলিটান অধিবাস।। এজাজ আহমদ; অনুবাদ: গোলাম ফারুক খান
  • তত্ত্বের রাজনীতি: উত্তরাধুনিকবাদ বিতর্কে আদর্শিক অবস্থান।। ফ্রেডরিক জেমসন; অনুবাদ জাকির মজুমদার
  • দ্বন্দ্ববাদ ও তার প্রাসঙ্গিকতা।। হায়দার আকবর খান রনো
  • বিনির্মাণবাদকে হ্যাঁ বলুন।। জাক দেরিদা
  • বিনির্মাণের তত্ত্বরূপ।। তপোধীর ভট্টাচার্য
  • উপস্থাপনার সমস্যা: উত্তরাধুনিক ভাবনা।। আনন্দ ঘোষ হাজরা
  • সাহিত্যে ক্লাসিসিজম, রোমান্টিসিজম ও মিস্টিসিজম।। ফরহাদ উদ্দিন ভুঁইয়া
  • মার্কসীয় দৃষ্টিতে সাহিত্য।। শহীদ-ই-হাসান তুহিন
  • আধুনিকতাবাদী শিল্প ও সাহিত্য আন্দোলন: কতিপয় ইশতেহার।। গোলাম ফারুক খান
  • আধুনিক পাশ্চাত্য-সাহিত্য।। শাহেদ সহরওয়ার্দ্দি
  • উত্তর সাংগঠনিক চিন্তা।। আফজালুল বাসার
  • উত্তর-উপনিবেশবাদী সাহিত্যতত্ত্ব।। মাসুদুজ্জামান
  • উত্তরাধুনিকতার উত্তরকাল।। সালাহউদ্দীন আইয়ুব
  • অ্যাবসার্ডবাদ ও সাহিত্যে তার প্রয়োগ।। বিশ্বজিত ঘোষ
  • আধুনিকতা, উত্তর আধুনিকতা, বিশ্বকবিতা।। সরকার মাসুদ
  • শিল্পে কলাকৈবল্যবাদ ও মানুষের কথা।। সঞ্জয় দে রিপন
  • নিও-ক্রিটিসিজম: তত্ত্ব ও সমীক্ষা।। বেগম আকতার কামাল
  • মনঃসমীক্ষাবাদী সাহিত্যতত্ত্ব।। খোন্দকার আশরাফ হোসেন
  • নন্দনতত্ত্ব ও শিল্পবোধ।। খান ফেরদৌসর রহমান

বইয়ে প্রকাশিত লেখকগণ প্রত্যেকেই আধুনিক কালের পণ্ডিত-চিন্তাবিদ। এই ২৪টি রচনায় সম্মানিত প্রাজ্ঞ লেখকগণের মননশীলতার বৈশিষ্ট্যপূর্ণ বুদ্ধিবৃত্তিক প্রকাশ ঘটেছে। তারা সমকালীন সাহিত্যচিন্তার বিভিন্ন ধারাকে সমালোচকের দৃষ্টিতে বিশ্লেষণ করার প্রয়াস পেয়েছেন। সমকালীন সাহিত্যের বিভিন্ন প্রেক্ষিত তাদের কাছে উপস্থিত হয়েছে বহুরৈখিক অভিব্যক্তি নিয়ে।

~*~*~*~*~*~*~*~*~*~

সাহিত্যতত্ত্ব বিষয়ে আরো কয়েকটি বইঃ
~*~*~*~*~*~*~*~*~*~

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ, তার পরবর্তী বিশ্বব্যবস্থা, এরপরের দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ মানুষের সমাজ সভ্যতা নির্মাণের ইতিহাসে যে অভিঘাত তৈরি করেছে তার প্রভাবে পূর্ববর্তী হাজার বৎসরের নীতি নৈতিকতা মুখোমুখি হয়েছে এক নিদারুণ অভিজ্ঞতার। মানুষ নতুনভাবে পুরনো চিন্তাগুলোকে বিবেচনা করতে চায়। যার প্রতিফলন ঘটেছে সাহিত্যের বিভিন্ন প্রকাশে। লেখকেরা কেউ কেউ সচেতন থাকলেও বেশিরভাগের রচনায় এই অনুভব প্রতিফলিত হয়েছে অবেচতন ভাবেই। সমালোচকগণ নতুন যুগের লেখকগণের মানসচিত্র উন্মোচন করতে চেয়েছেন। জানতে চেয়েছেন ভাবনাক্রিয়ার বাস্তব প্রতিরূপ।

সূচিপত্র দেখলেই বোঝা যায় যে আধুনিকতা শুরু হয়েছে মধ্যযুগের ইউরোপে, সমকালীন লেখকরা মনে করেন সেই আধুনিকতার সমাপ্তি ঘটেছে। জন্ম হয়েছে এক নতুন অভিজ্ঞতার, যার নাম 'উত্তর আধুনিকতা'। তাই এর প্রতি সকলের রয়েছে এক বিশেষ দৃষ্টিকোণগত আকর্ষণ। সাতটি নিবন্ধে সাতজন বিদগ্ধ আলোচক বিষয়টিকে বিভিন্ন মাত্রায় বিবেচনা করার চেষ্টা করেছেন। পাঠকের সামনে উপস্থাপন করেছেন উত্তরাধুনিকতার বৈশিষ্ট্যগত বিভিন্ন স্বরূপ। মধ্যযুগের রেনেসাঁসের সাথে যে দার্শনিক অভিধার সম্পর্ক ওতপ্রোতভাবে জড়িত সেই আধুনিকতার মৃত্যু যেন ঘোষণা হয়ে গেছে বিশ্বযুদ্ধের সাথে সাথেই। মানুষের ভাবনাজগতে যে পরিবর্তন হয়, তা যেন আর প্রচলিত আধুনিকতা নামক সংজ্ঞার ফ্রেমে প্রকাশ করা সম্ভব হচ্ছে না।

দীর্ঘ পরিচিতির একঘেঁয়ে আলাপন সীমিত করাই বাঞ্ছনীয়। তবে নির্দ্বিধায় বলা যায়, সাহিত্য সম্পর্কে সচেতন পাঠকের এই বই পড়া আবশ্যিক। বিভিন্ন সময়ের, সমাজের, দেশের, রাজনৈতিক চিন্তার, দর্শনের লেখকের সাহিত্যকীর্তিগুলো অনুধাবন করতে সাহিত্যতত্ত্বের জ্ঞান বেশ সহায়ক। নাহলে নিজের মনের অতিকল্পনার ঘূর্ণিপাকে উদ্ভূত বুদবুদগুলোকেই বুদ্ধিবৃত্তির অতিকায় অবয়ব বলে মনে হতে পারে। যেমনটা বাংলাদেশের বেশিরভাগ পাঠকের ক্ষেত্রে লক্ষ্য করা যায়। এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য অর্থাৎ সাহিত্য সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর জানতে 'ফজলুল হক সৈকত’ সম্পাদিত "সাহিত্যতত্ত্ব জিজ্ঞাসা” বইটি একবার হলেও পড়ে দেখা যেতে পারে।

বইটির ছাপানোর মান ভাল। কালো কালিতে স্পষ্টতর প্রিন্ট পড়তে গিয়ে চোখের উপর আলাদা কোন চাপ ফেলে না। প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান শোভা প্রকাশ এজন্য ধন্যবাদ পেতেই পারে। প্রচ্ছদ করেছেন বিপ্লব দেব। সাহিত্যতত্ত্ব সম্পর্কিত বইয়ের প্রচ্ছদ তৈরিতে তিনি মুন্সিয়ানার পরিচয় দিয়েছেন। প্রচ্ছদের দিকে তাকিয়েই পাঠক সাহিত্য সম্পর্কিত ভাবনায় নিমগ্ন হতে পারবেন। এই সাফল্য প্রচ্ছদ শিল্পীর একার। প্রত্যাশা করি সাহিত্য বিষয়ে প্রশ্নপ্রবণ চিন্তাশীল পাঠকের কাছে এই বই আদরণীয় হবে।

~*~*~*~*~*~*~*~*~*~

সাহিত্যতত্ত্ব জিজ্ঞাসা
ফজলুল হক সৈকত


প্রচ্ছদঃ বিপ্লব দেব
প্রকাশকঃ শোভা প্রকাশ, ঢাকা।
প্রকাশকালঃ ২০১৩
পৃষ্ঠাঃ ৩৩৬
মূল্যঃ ৩৫০ টাকা
ISBN: 984-70084-0188-7

0/আপনার মতামত?/টি মন্তব্য

মন্তব্য করার পূর্বে মন্তব্যর নীতিমালা সম্পাদকের স্বীকারোক্তি পড়ুন। ই-মেইল ফর্ম।

নবীনতর পূর্বতন